সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ক্রীড়ানুরাগ ছিল সর্বজনবিদিত। একজন দক্ষ ফুটবলার হিসেবে তাঁর বিশেষ পরিচিতি ছিল। চল্লিশের দশকে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের যখন রমরমা অবস্থা, তখন বঙ্গবন্ধু এই ক্লাবের হয়েই ফুটবল মাঠ মাতিয়েছেন। দেশ স্বাধীনের সময় তিনি জাতিকে যেমন করে দক্ষতার সাথে নেতৃত্ব দিয়েছে, ঠিক তেমনি ক্রীড়াঙ্গনে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবকেও নেতৃত্ব দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু।

বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথই অনুসরণ করে গেছেন তাঁর দুই ছেলে শেখ কামাল ও শেখ জামাল। শেখ কামাল ফুটবল, ক্রিকেট ও বাস্কেটবল তিনটি খেলাতেই সমান পারদর্শী ছিলেন। আবাহনীর হয়ে ক্রিকেট খেলেছেন। বাস্কেটবল খেলেছেন ঢাকা ওয়ান্ডারার্সের হয়ে। আবাহনী ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা তিনি। শেখ জামালও অবদান প্রতিষ্ঠায়। তিনি ভালোমানের হকি খেলোয়াড়ও ছিলেন।

২০২২ সালটি আমাদের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ, কেননা এ বছর জুড়ে আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে আমাদের বিজয়ের ৫০ তম বছর উদযাপন করছি। তাই বিজয়ের পঞ্চাশে বিগত বছরগুলোর সাফল্যের ধারাবাহিকতায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শে ও চেতনায় সোনার বাংলা গঠনে আগামীর তারুণ্যের প্রাণশক্তি ও উদ্দীপনাকে সমুন্নত রাখার প্রত্যয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশ, তারুণ্যের বাংলাদেশ’ – কে প্রতিপাদ্য হিসেবে ধারণ করে সারাদেশের সকল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মিলিত অংশগ্রহণে এ বছর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর তৃতীয় আসর’।

বার্তা
চেয়ারম্যান
বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর তৃতীয় আসর

বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহানায়ক, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গঠনের সেই স্বপ্ন তারুণ্যের উদ্দীপনায় ধীরে ধীরে পূর্ণতা প্রাপ্তির পথে। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে উৎসর্গ করে ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশ, তারুণ্যের বাংলাদেশ’ এ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে আয়োজিত হতে যাচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ’ এর ৩য় আসর।

খেলাধুলার মাধ্যমে আমাদের দেশের তরুণদের মাঝে গড়ে উঠবে কর্তব্যপরায়ণতা, ভ্রাতৃত্ববোধ, অধ্যবসায় ও নেতৃত্বদানের গুণাবলি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, চেতনা ও ক্রীড়াপ্রেমী মানসিকতা তারুণ্যের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে তাদের আগামীর পথে যাত্রাকে আরো বেগবান করার লক্ষ্যে এই উদ্যোগটি একটি ভিত্তিভূমি হিসেবে কাজ করবে।

মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি
প্রতিমন্ত্রী
যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

বার্তা
সদস্য সচিব
বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর তৃতীয় আসর

আমাদের যুব সমাজকে, ছাত্র সমাজকে আরও বেশি সম্পৃক্ত করে এ দেশ থেকে মাদকসহ যে সকল অপকর্ম আছে এবং আমাদের যুব সমাজকে এবং আমাদের ছাত্র সমাজকে খারাপ পথে নিয়ে যায় তা থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা নানামুখী উদ্যোগ মন্ত্রীমহাদয়ের (মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়) মাধ্যমে নিচ্ছি। এবং এই আয়োজনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট।

২০২১ সালে প্রকট COVID থাকার কারণে এটি সম্ভব হয়নি। এ বছরের অনুষ্ঠানগুলো খুব সুন্দরভাবে হবে। মাননীয় মন্ত্রীমহাদয়ের নির্দেশনায় আমাদের সবার মাঝে এ আয়োজনটি দেশের ভিতরে সাড়া ফেলবে। অনেক ছাত্রছাত্রী এখানে অংশগ্রহণ করবে এবং আমরা প্রত্যাশা করছি গতবারের তুলনায় অনেক বেশি বিশ্ববিদ্যালয় হবে।  

মেজবাহ উদ্দিন
সচিব
যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

সাংগঠনিক কমিটি

একনজরে প্রতিযোগিতাসমূহ এবং রেজিস্ট্রেশন

কাবাডি

পুরুষ/নারী

বাস্কেটবল

পুরুষ/নারী

ভলিবল

পুরুষ/নারী

ফুটবল

পুরুষ/নারী

ব্যাডমিন্টন

পুরুষ/নারী

সাইক্লিং

পুরুষ/নারী

ক্রিকেট

পুরুষ/নারী

সু্ইমিং

পুরুষ/নারী

দাবা

পুরুষ/নারী

টেবিল টেনিস

পুরুষ/নারী

হ্যান্ডবল

পুরুষ/নারী

অ্যাথলেটিক্স

পুরুষ/নারী
স্প্রিন্ট, ম্যারাথন, জাম্প, হার্ডলেস

১ চ্যাম্পিয়ন ট্রফি

১ ফেয়ার প্লে ট্রফি

১ সেরা ক্রীড়াবিদ
পুরুষ

১ সেরা ক্রীড়াবিদ
নারী

৬ ইভেন্ট বিজয়ী
পুরুষ

৬ ইভেন্ট বিজয়ী
নারী

১৪৪ বিজয়ী

১ম, ২য় ও ৩য়

৭২০ টি পদক

গোল্ড, সিলভার ও ব্রোঞ্জ ​

দেশের সকল অংশগ্রহণকারী পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্য থেকে সর্বোচ্চ পদক বিজয়ী বিশ্ববিদ্যালয়কে পয়েন্টের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর ৩য় আসর এর বিজয়ী ঘোষণা করে এক বছরের জন্য চ্যাম্পিয়ন ট্রফি প্রদান করা হবে।

সর্বোচ্চ পদক বিজয়ী নারী ও পুরুষ ক্রীড়াবিদকে সেরা ক্রীড়াবিদ, নারী এবং সেরা ক্রীড়াবিদ, পুরুষ পদকে ভূষিত করা হবে।

প্রত্যেক ইভেন্টের সেরা ৩ জন হিসেবে মোট ১৪৪ জন বিজয়ী ক্রীড়াবিদকে যথাক্রমে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ পদকে ভূষিত করে মোট ৭২০ টি পদক প্রদান করা হবে।

বাংলাদেশে সকল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ১০ লাখ ছাত্র-ছাত্রীর জন্য এই আয়োজন উন্মুক্ত। সকল ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়াপ্রেমী ছাত্র-ছাত্রী এই আয়োজনে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ পাবে।

হোস্ট বিশ্ববিদ্যালয়

মিডিয়া

লঞ্চিং

শহীদ শেখ কামাল মিলনায়তন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ
তারিখঃ ০৭ জুন, ২০২২

কার্যক্রম সমূহ
১. মিডিয়া ব্রিফিং
২. রেজিস্ট্রেশন
৩. প্রতিপাদ্য উদ্বোধন
৪. থিম সং উদ্বোধন
৫. জার্সি প্রতিযোগিতা

জাতীয় দৈনিক পত্রিকা, টিভি মিডিয়া, রেডিও মিডিয়া ও অনলাইন নিউজ পোর্টালের সাংবাদিকগণের উপস্থিতিতে মিডিয়া লঞ্চিং-এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হয়।

প্রধান অতিথিঃ
যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী
মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি

বিশেষ অতিথিঃ
প্রধান পৃষ্ঠপোষক পোলার আইসক্রিম কোম্পানির সি,ই,ও
জনাব শাহ মাসুদ ইসলাম।

ভেন্যুঃ রাসেল স্কয়ার
তারিখঃ ১৫ জুলাই ২০২২
(পরিকল্পিত ও প্রস্তাবিত)

তরুণদের মাঝে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চেতনা ছড়িয়ে দিতে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর কার্যক্রম হিসেবে আয়োজন করা হয় মশাল যাত্রা ও নেটওয়ার্কিং ইভেন্ট। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী এবং বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর চেয়ারম্যান মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি মশাল প্রজ্জ্বলন করার মাধ্যমে মশাল যাত্রার উদ্বোধন করেন। মূল পর্বে বিশেষ অতিথিবৃন্দের বক্তব্য, থিম সং এর ভিডিও প্রদর্শন ও প্রধান অতিথির শেষে শুরু হয় মশাল যাত্রা।

0
অ্যাম্বাসেডর
0
বিশ্ববিদ্যালয়

ক্যাটাগরি

0
খেলা পরিচালনা
0
সাংবাদিকতা
0
ফটোগ্রাফি
0
নিরাপত্তা এবং লিয়াজো

মশাল প্রজ্বলন ও ফিক্সচার ড্র

২২ আগস্ট, ২০২২
টুঙ্গীপাড়া

বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয়-এর দ্বিতীয় আসরের ফিক্সচার ড্র

জার্সি ও ট্রফি লঞ্চিং

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

হাতিরঝিল অ্যাম্ফিথিয়েটার

মুজিব বর্ষ ও বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যদ্বয়কে উৎসর্গ করে ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশ, তারুণ্যের বাংলাদেশ’ কে প্রতিপাদ্য হিসেবে ধারণ করে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সারাদেশের সকল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মিলিত অংশগ্রহণে আগামী ১ম সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর ৩য় আসর’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। জাঁকজমকপূর্ণ এই অনুষ্ঠানে থাকছে গালা কন্সার্টসহ নানা আয়োজন।

১১টি পৃথক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

এক্সক্লুসিভ অ্যাওয়ার্ড এন্ডোর্সমেন্ট

টিভি এবং ডিজিটাল মিডিয়ায় সরাসরি সম্প্রচার

অ্যাড প্লেসমেন্ট ইন লাইভ শো

চেকার বোর্ড

ভারবাল এন্ডোর্সমেন্ট

ভিআইপিদের সাথে স্টেইজ শেয়ারের সুযোগ

ইভেন্ট ভিত্তিক

কর্মশালা

ভেন্যুঃ সংশ্লিষ্ট ফেডারেশন
তারিখঃ আগস্ট ২০২২

বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর এই ইভেন্ট ভিত্তিক কর্মশালার মাধ্যমে সকল অংশগ্রহণকারী খেলোয়াড়দের নির্দিষ্ট ফেডারেশন বা বোর্ড এর পক্ষ থেকে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিনিধিগণ খেলার তাত্ত্বিক প্রশিক্ষন দিয়ে থাকে।

ক্রীড়ানুষ্ঠান উদযাপন

বংগঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর ফাইনালিস্টদের উৎসাহিত ও সম্মানিত করার লক্ষ্যে ক্রীড়াঙ্গণে প্রজেক্টরের মাধ্যমে বড় পর্দায় খেলা দেখার আয়োজন করা হবে।

Branding: 4pcs X Banner will be placed including 1pc dedicated banner for all sponsors

থিম সং-এ বিজয়ী প্রথম ৫ জন পাবে কন্সার্টে পারর্ফম করার সুযোগ

তারিখঃ ১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ প্রোগ্রাম উপলক্ষ্যে বর্নাঢ্য কনসার্টের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সেরা ৫ ব্যান্ডদলের পার্ফরফেন্সের মাধ্যমে এই উন্মুক্ত কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। ব্যান্ডদলের পারফর্মেন্স শেষে জার্সি ডিজাইন প্রতিযোগীদের ফলাফল ঘোষণা করা হয় এবং প্রতিযোগীদের মধ্য থেকে সেরা জার্সি ডিজাইনারকে পুরষ্কার করা হয়। অতিথিবৃন্দের উপস্থিতে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্সি উন্মোচন ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদের জার্সি হস্তান্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হওয়ার পর সর্বশেষে জাতীয় পর্যায়ের একজন স্বনামধন্য গায়ক/ব্যান্ডের পার্ফরমেন্সের মাধ্যমে কনসার্ট এবং জার্সি উন্মোচন ইভেন্টের সমাপ্ত হয়।

বিগত আসরে উক্ত প্রোগ্রামটির সভাপতিত্ব করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডঃ আবুল কালাম আব্দুল মোমেন। এছাড়াও জনপ্রিয় রক্সস্টার জেমস ২৫০০০ শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে কনসার্টে পারর্ফম করেন।

ক্রীড়া

উদ্বোধনী

প্রস্তাবিত ভেন্যুঃ হাতিরঝিল
তারিখঃ ০৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ এর চেয়ারম্যান মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের প্রতিনিধিগণের উপস্থিতিতে ঢাকার হাতিরঝিলে ম্যারাথন ও সাইক্লিং প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ক্রীড়া উদ্বোধনী ইভেন্ট আয়োজিত হয়।

সমাপনী অনুষ্ঠান

এবং কনসার্ট

এই তুমুল প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে তারুণ্যের উদ্দীপনাকে আরও একধাপ বাড়িয়ে দিতে মাঠে উপস্থিত থেকে দেশের অংশগ্রহণকৃত পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয়ী বিশ্ববিদ্যালয় এবং খেলোয়াড়দের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন স্বয়ং বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এবং ফাইনাল ফুটবল ম্যাচ- পুরুষ বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং মিডিয়া পার্টনার চ্যানেল থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হবে। স্পন্সরদের জন্য থাকছে ব্রান্ডিং এর সুযোগ।